• স্টাইল ক্রেইজ (style craze) ফ্যাশন হাউজে নতুন ঈদ কালেকশন
  • ২০২০ সাল পর্যন্ত কর অব্যাহতি পাচ্ছে গ্রামীণ ব্যাংক
  • বিশেষ তহবিলে বিনিয়োগের সীমা বেঁধে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
  • ব্যাংকিং সেক্টরেও আছে দুষ্টু চক্র : এনবিআর চেয়ারম্যান
  • ৫ দিনব্যাপী ব্যাংকিং মেলা শুরু
  • এসএমই ঋণে সুদ হারের ব্যবধান সিঙ্গেলে রাখার নির্দেশ
  • বাংলাদেশ ব্যাংককে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি:
  • বাংলা একাডেমিতে বসছে ব্যাংকিং মেলা
  • দুদক বেসিক ব্যাংকের নথিপত্র সংগ্রহে আদালতে যাবে
  • স্কুল ব্যাংকিংয়ে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের নির্দেশ

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের উপদেষ্টা হতে অভিজ্ঞতা লাগবে ১৫ বছর

bangladeshbank
ব্যাংক নিউজ ২৪ ডট কমঃ আর্থিক প্রতিষ্ঠানে চুক্তিভিত্তিক উপদেষ্টা ও পরামর্শক নিয়োগ সংক্রান্ত নীতিমালা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নীতিমালা অনুযায়ী ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সক্রিয় কর্মকর্তা হিসেবে কিংবা প্রশাসনিক অভিজ্ঞতা বা সামাজিক কর্মকাণ্ডে কমপক্ষে ১৫ বছর কাজ করেছেন এমন ব্যক্তিদের উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া যাবে। তবে এসব নিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিতে হবে।

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ থেকে এসব নির্দেশনা দিয়ে উপদেষ্ঠা ও পরামর্শক নিয়োগ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনটি এরই মধ্যে সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর কাছেও পাঠানো হয়েছে।

নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে, কোনো কোম্পানির চেয়ারম্যান, পরিচালক বা কর্মকর্তা থাকার সময় ওই পদ হতে বহিষ্কৃত ব্যক্তিকে উপদেষ্টা বা পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া যাবে না। ঋণ বা কর খেলাপি, আদালত কর্তৃক দেউলিয়া ঘোষিত ব্যক্তি, আদালত বা নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা কর্তৃক দণ্ডিত ব্যক্তি এ পদের যোগ্য বিবেচিত হবেন না। তাছাড়া কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কোনো পদে কর্মরত ব্যক্তি কিংবা ওই আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা এর পরিচালকদের ব্যবসায়ের সাথে জড়িত কোনো ব্যক্তিকে উপদেষ্টা পদে নিয়োগ দেওয়া যাবে না।

নীতিমালায় এসব নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে কাজ ও কাজের পরিধি সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ থাকার কথা বলা হয়েছে। আর্থিক, প্রশাসনিক ও দৈনন্দিন পরিচালন কার্যাদি উপদেষ্টার কার্য-পরিধির আওতামুক্ত থাকবে এবং নিজস্ব কার্য-পরিধির বাইরে অন্য কোনো কর্মকান্ডে তাকে সম্পৃক্ত করা যাবে না বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

নিয়োগপ্রাপ্ত উপদেষ্টা নিয়োগের শর্তের বাইরে কোনো সুবিধাদি পাবেন না। তাছাড়া উপদেষ্টাকে অসংগতিপূর্ণ উচ্চমাত্রার পারিশ্রমিক প্রদান করা যাবে না।

উপদেষ্টা পদে চাকরির মেয়াদ হবে সর্বোচ্চ এক বছর। তবে তা পুনঃনিয়োগযোগ্য। পুনঃনিয়োগের ক্ষেত্রে তার কারণ এবং উপদেষ্টার পূর্ব মেয়াদের মূল্যায়ন প্রতিবেদন (পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদনক্রমে চেয়ারম্যান কর্তৃক স্বাক্ষরিত) বাংলাদেশ ব্যাংকে দাখিল করতে হবে।

আর পরামর্শক নিয়োগের শর্তে বলা হয়েছে, ট্যাক্স, আইন ও মামলা, প্রকৌশল ও কারিগরি, তথ্যপ্রযুক্তি ইত্যাদি বিশেষায়িত কাজের জন্য চুক্তিভিত্তিক পরামর্শক নিয়োগ করা যাবে। পরামর্শকের কাজের পরিধিও সুনির্দিষ্ট থাকতে হবে। পরামর্শকের চাকরির মেয়াদ হবে সর্বোচ্চ ২ বছর। তবে অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের পূর্বানুমোদন নিয়ে আরও এক বছরের জন্য পরামর্শকের চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো যাবে।

বর্তমানে আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত উপদেষ্টা ও পরামর্শকদের চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ করার ক্ষেত্রে এ নীতিমালা কোনো অন্তরায় সৃষ্টি করবে না বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিভাগ - : অর্থ ও বাণিজ্য, ব্যাংক

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন