• স্টাইল ক্রেইজ (style craze) ফ্যাশন হাউজে নতুন ঈদ কালেকশন
  • ২০২০ সাল পর্যন্ত কর অব্যাহতি পাচ্ছে গ্রামীণ ব্যাংক
  • বিশেষ তহবিলে বিনিয়োগের সীমা বেঁধে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
  • ব্যাংকিং সেক্টরেও আছে দুষ্টু চক্র : এনবিআর চেয়ারম্যান
  • ৫ দিনব্যাপী ব্যাংকিং মেলা শুরু
  • এসএমই ঋণে সুদ হারের ব্যবধান সিঙ্গেলে রাখার নির্দেশ
  • বাংলাদেশ ব্যাংককে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি:
  • বাংলা একাডেমিতে বসছে ব্যাংকিং মেলা
  • দুদক বেসিক ব্যাংকের নথিপত্র সংগ্রহে আদালতে যাবে
  • স্কুল ব্যাংকিংয়ে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের নির্দেশ

এটিএম বুথ স্থাপনে আর বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমতি লাগবে না

atmboth
ব্যাংক নিউজ ২৪ ডট কমঃ আগামীতে কোনো ব্যাংক নতুন অটোমেটেড টেলার মেশিন বা এটিএম বুথ স্থাপন করতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদনের প্রয়োজন পড়বে না। তবে এসব বুথ স্থাপনের ভাড়া ও খরচের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন নিতে হবে। এছাড়া এসব বুথের মাধ্যমে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালানো যাবে না।

মঙ্গলবার এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এসব কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ বাংক। প্রজ্ঞাপনে এটিএমসহ সব ধরনের ইলেকট্রনিক বুথ স্থাপনের ক্ষেত্রে একই কথা বলা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনটি মঙ্গলবারই সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠানো হয়েছে। ২০১২ সালের ২৯ নভেম্বরের প্রজ্ঞাপন সংশোধন করে নতুন জারি করা এই প্রজ্ঞাপন অবিলম্বে কার্যকর করা হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শনে এসব ভাড়া ও খরচের বিষয়ে কোনো অনিয়ম ধরা পড়লে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বুথের কার্যক্রম বন্ধ করা হবে বলে সতর্ক করেছে ব্যাংকিং খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

প্রজ্ঞাপনে ব্যাংকের জন্য ভবন ভাড়া বা ইজারা গ্রহণের করণীয় সম্পর্কেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, ভবন ভাড়া বা ইজারা নেওয়ার ক্ষেত্রে একবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমোদন নেওয়া হলে পরবর্তী নবায়নের ক্ষেত্রে আর অনুমোদনের প্রয়োজন হবে না। তবে একই মেয়াদে (৩ বছর ও বেশি সময়ের জন্য) ভাড়া বৃদ্ধি সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশের মধ্যে থাকতে হবে। আর ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ভাড়া নবায়নের অনুমোদন দেওয়ার এক মাসের মধ্যে তা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগকে জানাতে হবে।

উল্লেখ্য, এটিএমসহ সব ধরনের ইলেকট্রনিক বুথ স্থাপন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমতি নিতে হতো। এছাড়া ব্যাংকের ভাড়া বা ইজারা গ্রহণ ও নবায়নেও অনুমোদন লাগতো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের। আর এসব কাজে নির্দিষ্ট ছকে আবেদন করতে হতো ব্যাংকগুলোকে। এজন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন লাগতো।

বিভাগ - : ব্যাংক

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন