• স্টাইল ক্রেইজ (style craze) ফ্যাশন হাউজে নতুন ঈদ কালেকশন
  • ২০২০ সাল পর্যন্ত কর অব্যাহতি পাচ্ছে গ্রামীণ ব্যাংক
  • বিশেষ তহবিলে বিনিয়োগের সীমা বেঁধে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
  • ব্যাংকিং সেক্টরেও আছে দুষ্টু চক্র : এনবিআর চেয়ারম্যান
  • ৫ দিনব্যাপী ব্যাংকিং মেলা শুরু
  • এসএমই ঋণে সুদ হারের ব্যবধান সিঙ্গেলে রাখার নির্দেশ
  • বাংলাদেশ ব্যাংককে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি:
  • বাংলা একাডেমিতে বসছে ব্যাংকিং মেলা
  • দুদক বেসিক ব্যাংকের নথিপত্র সংগ্রহে আদালতে যাবে
  • স্কুল ব্যাংকিংয়ে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের নির্দেশ

ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন বিল সংসদে উত্থাপন

san

ব্যাংক নিউজ ২৪ ডট কম:ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা পৃথক করতে বহুল আলোচিত ‘একচেঞ্জেস ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন বিল-২০১৩’ সংসদে উত্থাপন হয়েছে।

রোববার বিলটি সংসদে উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রীর অনুপস্থিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্কৃতিমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ। পরে বিলটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ১৫ দিনের মধ্যে সংসদে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

প্রস্তাবিত আইনটি কার্যকর হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে স্টক এক্সচেঞ্জগুলো তাদের প্রস্তাবিত ‘ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিম’ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ এসইসিতে জমা দেবে। যা পরবর্তী ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে এসইসি অনুমোদন দেবে। এরমধ্য দিয়ে স্টক এক্সচেঞ্জের ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন প্রক্রিয়া সমাপ্ত হবে।

আইনটি কার্যকর হলে ডিএসই ও সিএসইর ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা পৃথক হবে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ, একচেঞ্জগুলোতে কার্যকর প্রাতিষ্ঠানিক সু-শাসন প্রতিষ্ঠা, সিকিউরিটিজ এ বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করতে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোর ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন এর লক্ষ্যে আইন প্রণয়ন করা প্রয়োজন।’

মুহিত আরো বলেন, ‘মালিকানা ও ব্যবস্থাপনা পৃথক না হলে স্বার্থের সংঘাত সৃষ্টি হয় এবং বিনিয়োগকারী তথা জনস্বার্থ ব্যাহত হয়। এ আইন প্রণয়নের ফলে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা, পরিচালন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। তাছাড়া সুশাসন নিশ্চিত হওয়াসহ স্বার্থ সংক্রান্ত সংঘাত নিরসন হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমানে সারাবিশ্বে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোর ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন একটি যুগোপযোগী ধারণা হিসাবে স্বীকৃত হয়েছে। স্টক এক্সচেঞ্জের ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের ধারণা প্রথম শুরু হয় ১৯৯৩ সালে। বর্তমানে বিশ্বের ৫০টিরও বেশি স্টক এক্সচেঞ্জে দেশে ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন সম্পন্ন হয়েছে।’

বিভাগ - : অর্থ ও বাণিজ্য, জাতীয়

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন